জ্যাক কেরুয়াক’র হাইকু :: অনুবাদ: আল ইমরান সিদ্দিকী

JK

জ্যাক কেরুয়াক (১২ মার্চ, ১৯২২— ২১ অক্টোবর, ১৯৬৯) একজন প্রখ্যাত মার্কিন কবি ও ঔপন্যাসিক।  তিনি উইলিয়াম এ. বারোজ ও অ্যালেন গিন্সবার্গের সাথে মিলে বিট জেনারেশনের নেতৃত্ব দিয়েছেন। বিট জেনারেশন তাদের শিল্প-সাহিত্য ও বিবিধ কর্মকাণ্ডের জন্য ব্যাপক গ্রহণযোগ্যতা অর্জন করে।  দারিদ্রতা, মাদক, জ্যাজ, আধ্যাত্মিকতা ও বৌদ্ধবাদের মতো ইস্যুগুলির সংমিশ্রণে এই জেনারেশনের মতাদর্শ গড়ে ওঠে। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ পরবর্তী সময়ে প্রচলিত সামাজিক মূল্যবোধগুলিকে অস্বীকার করা ও বদলে দেয়ায় বিট প্রজন্ম ছিল অঙ্গীকারবদ্ধ । অনেকেই জ্যাক ক্যারুয়াককে ‘বিট জেনারেশনের জন্মদাতা’ও বলে থাকেন। মূলত ঔপন্যাসিক হিসেবেই জ্যাক কেরুয়াক অত্যাধিক সমাদৃত। কিন্তু কবি হিসেবেও তাঁর সমাদর কম নয়। দ্য টাউন অ্যান্ড দ্য সিটি(১৯৫০), অন দ্য রোড (১৯৫৭)  এবং ডেসোলেশন এঞ্জেলস (১৯৬৫) তাঁর বিখ্যাত গ্রন্থগুলির অন্যতম এবং তাঁর উপন্যাসগুলি মূলত আত্মজৈবনিক ।  হাইকু’র একটি নিজস্ব ধারা সৃষ্টির জন্যও তিনি আলোচিত ও প্রশংসিত।

*
ভূমিকম্পের পর,
একটি শিশু কাঁদছে
নিস্তব্ধতায়

*
আহ, ঝিঁঝিঁরা
ছুঁড়ে দিচ্ছে চিৎকার 
চাঁদের দিকে 

*
শান্ত শরতের একটি রাত
এবং এই বেকুবেরা
তর্ক শুরু করছে

*
একটি বৃষ্টির ফোঁটা
ছাদ থেকে
ঝরে পড়লো আমার বিয়ারে 

*
আমি কি ফুল নাকি,
মৌমাছি, আমার দিকে
তাকিয়ে আছো যে?

*
এবং শান্ত বিড়ালটি
খাম্বায় বসে
চাঁদকে উপলব্ধি করছে

*
অ্যাপাসিওনাটা সোনাটা
—হাইবল্‌স মদ, ধূসর
অক্টোবরের বিকালবেলা।

*
এপ্রিলের কুয়াশা—
পাইনের নিচে
মধ্যরাতে

*
একটা বসন্তের মশা
জানেও না
কিভাবে কামড়াতে হয়!

*
একটি বুদ্বুদ, একটি ছায়া—
উফ—
বিদ্যুতের ঝলকানি

*
শরতের সন্ধ্যা—
আমার মা পিয়ানোতে বাজাচ্ছে
পুরনো প্রেমের গান

*
পাখিরা গান করছে
অন্ধকারে
বৃষ্টিমুখর ভোরবেলা

*
পাখিটা অকস্মাৎ  গান থামালো
তার শাখায়—তার
বউ তার দিকে আড়চোখে তাকাচ্ছে

*
চাঁদের আলোয় বুদ্ধ
—আমার শার্টের ফুটোয়
মশার কামড়

*
ঠান্ডা ধূসর 
শীতকালীন ঘাসের দল
নক্ষত্রের নিচে

*
আমি পরোয়া করি না—
ইষৎ হলদে 
চাঁদ আমাকে ভালোবাসে

*
আমি খুঁজে পেয়েছি
আমার বিড়াল—একটি
নীরব জ্যোতিষ্ক

*
রাস্পবেরি ফলের জেলো বানালাম
অনেক  রুবির রঙ
অস্তগামী সূর্যে

*
সূর্যালোকে
প্রজাপতির ডানা
যেন গীর্জার জানালা

*
আমি একটা জোক বললাম
নক্ষত্রের নিচে
—কোনো হাসাহাসি নেই
আল ইমরান সিদ্দিকী। জন্মনকটা: অক্টোবর, ১৯৮৩ ইং, নীলফামারি। 
বর্তমান নিবাস: নিউ জার্সি, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র।
ব্যবসায় প্রশাসনে স্নাতকোত্তর করছেন রাটগার্স বিশ্ববিদ্যালয়ে।
প্রকাশিত কবিতার বই: কাঠঠোকরার ঘরদোর(২০১৫),
ধুপছায়াকাল (২০১৮), গোধূলির প্যানোরামা (২০২০)।
সম্পাদনা: ওয়েবম্যাগ ‘নকটার্ন’ (যৌথ)।

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s